২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ২:০২

মেয়রপ্রার্থীসহ বিএনপির ১৯ নেতাকর্মী আজীবন বহিষ্কার

রিপোর্টার নামঃ
  • আপডেট সময়ঃ রবিবার, জুন ৪, ২০২৩,
  • 28 পঠিত

মেয়রপ্রার্থীসহ বিএনপির ১৯ নেতাকর্মী আজীবন বহিষ্কারটেবিল ঘড়ি প্রতীকে স্বতন্ত্রপ্রার্থী সাবেক ছাত্রদল নেতা কামরুল আহসান রুপনদলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে বরিশাল সিটি নির্বাচনে মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হওয়া ১৯ জনকে বিএনপি থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। রোববার (০৪ জুন) বেলা ১১টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন বরিশাল মহানগর বিএনপির দপ্তরের দায়িত্বে থাকা মো. জাহিদুর রহমান রিপন। তিনি বলেন, নির্বাচনে অংশ নেওয়া একজন মেয়র, সাধারণ ১৫ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদের তিন প্রার্থীকে দলের প্রাথমিক সদস্যপদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত আজীবন বহিষ্কার আদেশের কপি প্রত্যেক প্রার্থীর কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আজীবন বহিষ্কৃতরা হলো- টেবিল ঘড়ি প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা কেন্দ্রীয় ছাত্রদল ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক সদস্য মো. কামরুল আহসান রুপন, বরিশাল নগরের ৬ নম্বর ওয়ার্ড থেকে লাটিম প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী হাবিবুর রহমান টিপু, ৯ নম্বর ওয়ার্ডেরঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী মো. হারুন অর রশিদ ও ১৯ নং ওয়ার্ডের ঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ আমিনুল ইসলাম আমিন। এরা তিনজনই বরিশাল মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক পদে ছিলেন। এছাড়া রয়েছেন -নগরের ৩নং ওয়ার্ড থেকে রেডিও প্রতীকের সাধারণ কাউন্সিলর পদের প্রার্থী ও ওই ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি সৈয়দ হাবিবুর রহমান ফারুক, মহানগর বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও ৯ নং ওয়ার্ডের ঘুড়ি প্রতীকে সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রার্থী সেলিম হাওলাদার, সংরক্ষিত আসনে ২ নম্বর ওয়ার্ডের গ্লাস প্রতীকের প্রার্থী জাহানারা বেগম, ৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে আনারস প্রতীকের প্রার্থী সেলিনা বেগম এবং ১০ নম্বর ওয়ার্ড থেকে আনারস প্রতীকের প্রার্থী রাশিদা পারভীন। এছাড়াও অন্যান্যরা হলেন- নগরের ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও রেডিও প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ হুমায়ন কবির লিংকু , ১৫ নম্বর ওয়ার্ডেরলাটিম প্রতীকের প্রার্থী ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, নগরের ১৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির সদস্য সচিব ও ঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী জিয়াউল হক মাসুম, একই ওয়ার্ডের টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকের প্রার্থী দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাবের আব্দুল্লাহ সাদি, একই ওয়ার্ডেরমিষ্টি কুমড়া প্রতীকের প্রার্থী বরিশাল জেলা তাঁতি দলের সাবেক সভাপতি কাজী মোহাম্মদ সাহিন, ১৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও রেডিও প্রতীকের প্রার্থী মনিরুল ইসলাম, ২২ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও লাটিম প্রতীকের প্রার্থী জেসমিন সামাদ, ২৪ নং ওয়ার্ডের টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীকের প্রার্থী ও একই ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি ও মহানগরের সাবেক সহ-সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ, ২৬ নং ওয়ার্ডের ঘুড়ি প্রতীকের প্রার্থী ও ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি ফরিদ উদ্দিন হাওলাদার, ২৮ নং ওয়ার্ডের লাটিম প্রতীকের প্রার্থী ও একই ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির। গত ২ জুন রাত সাড়ে ১০টায় তাদের প্রত্যেককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জবাব দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। নোটিশের যে জবাব দিয়েছিলেন তারা, তা সন্তোষজনক না হওয়ায় আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে তাদের। বহিষ্কারাদেশ কপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, আগামী ১২ জুনের বরিশাল সিটির প্রহসনের নির্বাচনে আপনি প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করার কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব সন্তোষজনক নয়। আপনার নির্বাচন করার সিদ্ধান্তগত ১৫ বছর ধরে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে করা গুম, খুন ও সরকারি পৈশাচিক নিপীড়নের শিকার হয়েছে এমন পরিবারসহ গণতন্ত্রকামী জনগোষ্ঠীর আকাংখার প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা। দলীয় গঠনতন্ত্রের বিধান অনুযায়ী প্রাথমিক সদস্যপদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে আজীবন বহিষ্কারর করা হলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo