২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ২:২০

বরিশালে বড় ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত খোকন সেরনিয়াবাত

স্মার্ট বরিশাল নিউজ ডেক্স:-
  • আপডেট সময়ঃ সোমবার, জুন ১২, ২০২৩,
  • 157 পঠিত

স্মার্ট বরিশাল ডটকম

বরিশালে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীক নিয়ে আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত।
বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে প্রাপ্ত ফলাফলে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ। ১২৬ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ভোটে নৌকা প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৮৭ হাজার ৮০৮ ভোট।
অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মুফতি সৈয়দ মো. ফয়জুল করীম হাতপাখা প্রতীকে পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৮২৮ ভোট।
সোমবার (১২ জুন) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ শেষে ভোট গণনা শুরু করে নির্বাচন কমিশন। রাত সোয়া ৯টায় রিটার্নিং কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বরিশাল শিল্পকলা একাডেমিতে বেসরকারিভাবে এ ফল ঘোষণা করেন।
বিকাল ৪টার কিছু পর থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রের ফল আসতে থাকে। শুরু থেকেই ভোটে এগিয়ে ছিলেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ।
অপরদিকে,

শুরু থেকে মোটামুটি সুষ্ঠুভাবে ভোট চললেও বরিশালে দুপুরের দিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র প্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল করিমের ওপর হামলার অভিযোগ ওঠে। এতে তিনিসহ দলের বেশ কিছু নেতা–কর্মী আহত হয়েছেন।ইতিমধ্যে এই ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।এ ঘটনায় নগরের বিভিন্ন এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। হামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কয়েক শ নেতা-কর্মী শহরের দুটি স্থানে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। হামলা-মারধর-হয়রানি, পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে না দেওয়া, কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া, ভোটারদের বাধা দেওয়া, জোরপূর্বক ভোট দেওয়ারও অভিযোগ করেছে দলটি। রাজধানী ঢাকাতেই দলটির নেতা–কর্মীরা বিক্ষোভ করেছেন। বরিশাল সিটি করপোরেশনের ২ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৪ জন। ১২৬টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হয়। বরিশালে সকাল থেকেই ভোটার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। তবে কিছু কেন্দ্র থেকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন হাতপাখার মেয়র প্রার্থী। মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগও দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে ।
সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সিটি করপোরেশনের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের সরকারি বরিশাল কলেজ কেন্দ্রে নিজের ভোট দেন আবুল খায়ের আবদুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত । এরপর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, জয়ের ব্যাপারে তিনি আশাবাদী। তবে ফলাফল যা–ই হোক, মেনে নেবেন। সকাল সোয়া ৮টায় শহরের রূপাতলী হাউজিং এলাকার শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়রপ্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল করিম। ভোট দিয়ে তিনি তাঁর জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, মাত্র নির্বাচন শুরু হয়েছে। তবে শুরুটা ভালো হয়েছে। বরিশাল ও খুলনার ভোট সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে ঢাকা থেকে পর্যবেক্ষণ করেছে নির্বাচন কমিশন।

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ২ লাখ ৭৬ হাজার ২৯৮ জন। ১২৬ কেন্দ্রের ৮৯৪ কক্ষে ভোটগ্রহণ হয়েছে। নির্বাচনপ্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণে ১ হাজার ১৪৬টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছিলো করপোরেশনে। এই সিটিতে মেয়র পদে ৭ জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১১৫ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৪২ জন লড়ছেন। মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ব্যক্তিরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাতের প্রাপ্ত ভোট ৮৭৮০৮ , জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকের ইকবাল হোসেন তাপসের প্রাপ্ত ভোট -৬৬৬৫,
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাতপাখা প্রতীকের মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম ৩৩৮২৮, জাকের পার্টির গোলাপ ফুল প্রতীকের মিজানুর রহমান বাচ্চুর প্রাপ্ত ভোট ২৫৪৬ এ ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী আছেন ঘড়ি প্রতীকের মো. কামরুল আহসান রুপনের প্রাপ্ত ভোট ৭৯৯৯, হাতি প্রতীকের আসাদুজ্জামান পেয়েছে ৫২৯ ও হরিণ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছে আলী হোসেন ভোট পেয়েছে ২৩৮১।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo