১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৯:৫৩

ঈদ জামাতে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী’র সাথে এক কাতারে চাচা ভাতিজা করলেন কোলাকুলি

স্মার্ট বরিশাল নিউজ ডেক্স:-
  • আপডেট সময়ঃ বৃহস্পতিবার, জুন ২৯, ২০২৩,
  • 190 পঠিত

সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ উঠে গিয়ে খোকন সেরনিয়াবাতকে কদমবুচি করে শামিয়ানার নীচে নিয়ে আসেন।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত এবং বর্তমান মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ ঈদের নামাজ শেষে কোলাকুলি করেন।

এক কাতারে দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বরিশাল জেলা শাখার সহ-সভাপতি কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি ‘র সাথে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত, বর্তমান মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয় নগরীর বান্দ রোডের হেমায়েত উদ্দিন কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে। সেখানেই তারা ঈদের নামাজ আদায় করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জামাত শুরুর আগেই ঈদগাহে হাজির হন বর্তমান মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। এরপর সেখানে আসেন বরিশাল সদর ৫ আসনের সংসদ সদস্য, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম। এসময় মেয়র উঠে গিয়ে তাকে অভ্যর্থনা জানান। পরে দুজনই শামিয়ানার নীচে গিয়ে পাশাপাশি বসেন।

এরপর ঈদগাহে আসেন নবনির্বাচিত মেয়র খোকন সেরনিয়াবাত। তখন সাদিক আব্দুল্লাহ উঠে গিয়ে তাকে কদমবুচি করে শামিয়ানার নীচে নিয়ে আসেন।

কাতারে একপাশে ছিলেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীম,তার ডান পাশে খোকন সেরনিয়াবাত, প্রতিমন্ত্রীর বাম পাশে তারপর ছিল সাদিক আব্দুল্লাহর ছোট ছেলে এবং পরে ছিলেন সাদিক আব্দুল্লাহ। নামাজ শেষে সবাই কোলাকুলি করে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। নামাজ শুরুর আগে সবার উদ্দেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম এমপি ।

পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, দেশ বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সমৃদ্ধ হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা সকলে মিলে বরিশালকে সুন্দর শহর হিসেবে গড়ে তুলবো। বরিশালের উন্নয়নের স্বার্থে নগরবাসিদের দূর্ভোগ লাঘবে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া সিটি নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়া নবনির্বাচিত বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাত পাশে থাকার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন সবাই মিলে খোকন সাহেবকে সহযোগিতা করলে বরিশাল নগরীর প্রতিটি সমস্যা স্বল্প সময়ের মধ্যে দূর হবে৷ জলাবদ্ধতা নিরসনে তিনি ইতোমধ্যেই নগরীর খাল গুলো পুনরুদ্ধার করতে টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ বরিশাল বাসীর জন্য তারা নিয়েছেন। আগামী বছরের মধ্যে এর সুফল পাবে নগরবাসীরা।পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীম আরো বলেন, আসুন আমরা সবাই মিলে এই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাই। একসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি।

এরপর আরো বক্তব্য প্রদান করেন, বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, নবনির্বাচিত মেয়র খোকন সেরনিয়াবাত, বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান, বর্তমান মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ।

জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, কোরবানির গরুর জন্য কম দামি লবণ কিনবেন। যারা চামড়া সংগ্রহ করতে আসবেন তাদের দিয়ে দেবেন। কোনোভাবেই চামড়া নষ্ট করা যাবে না।

নবনির্বাচিত মেয়র খোকন সেরনিয়াবাত বরিশালবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, যারা আমার ওপর আস্থা রেখেছে, বিশ্বাস রেখেছে, আমি যেন সেই নতুন বরিশাল গড়তে পারি সেজন্য আল্লাহর কাছে দোয়া চাচ্ছি।
এ সময় তিনি নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, মেয়র হিসেবে আমি আজ শেষবারের মতো ঈদের জামাতে বক্তব্যে দিচ্ছি। এ নিয়ে পাঁচটি ঈদ কাটালাম। আজ আমরা সবার জন্য দোয়া করব। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর জন্য।

শুভেচ্ছা আগেও জানিয়েছি, আজ আবার জানাচ্ছি নবনির্বাচিত মেয়র আমার চাচাসহ সবাইকে। সবাইকে ঈদ মোবারক জানাই। আমার কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে ভুলত্রুটি হলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি।

এখানে আমার কোনো স্বার্থ ছিল না। বরিশারবাসীর স্বার্থই আমার স্বার্থ। আমি ছিলাম, আছি। যতদিন বেঁচে থাকব বরিশালবাসীর পাশে থাকব।সেবা করব। এজন্য মেয়র থাকতে হবে এমন কোনো কথা নেই।

এরআগে মেয়র তার ফেইসবুক প্রোফাইল থেকে লাইভে ক্ষোভের সাথেই বলেছিলেন ভবিষ্যতে যারা মেয়রের চেয়ারে বসবেন তারা কি করবে।

সাদিক আব্দুল্লাহ আরও বলেন,এই ঈদে সবার মনে যে কালিমা আছে, তা ধুয়েমুছে নতুন করে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করছি।

নামাজে বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস, বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবউদ্দিন আহম্মেদ বীর বিক্রম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু,বরিশাল মহানগর আওয়ামী যুবলীগ এর যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ্ব মাহমুদুল হক খান মামুন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগ নেতা অসীম দেওয়ান, বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ এর সাবেক সভাপতি জসিম উদ্দিন, বিএম কলেজ ছাত্রসংসদ (বাকসুর) সাবেক ভিপি মোঃ মঈন তুষার ।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এবার খোকন সেরনিয়াবাতের পাশাপাশি তার বড় ভাই আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর বড় ছেলে সাদিক আব্দুল্লাহও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্ত ভাতিজাকে বাদ দিয়ে চাচা খোকন সেরনিয়াবাতকেই নৌকা প্রতীক দিয়ে মনোনয়ন দেয়।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo