২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ২:৩৯

বরিশালে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে শিক্ষার্থীরা

বিশেষ প্রতিবেদক:-
  • আপডেট সময়ঃ সোমবার, জুলাই ১৭, ২০২৩,
  • 173 পঠিত

 

বিশেষ প্রতিবেদক

দিনারের পুল থেকে চরাইচা এ আর খান স্কুল ও বাজার সড়কের মাঝখানে তৈরি হয়েছে বিশাল গর্ত। সড়কের একপাশ ভেঙে পরছে খালে, একাংশ এখনো খানাখন্দে পানি জমে আছে। ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা ও প্রাথমিক বিদ্যালয় ও হাইস্কুলের শিক্ষার্থীরা হোটচ খাচ্ছে যখনতখন। বলা যায় অনেকটাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষার্থীদের চলাচল এপথে।

আর এই গুরুত্বপূর্ণ সড়কটির অবস্থান বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডে।

সোমবার সকালে সরজমিনে চরকাউয়ার দিনারের পুল ৪ নং ওয়ার্ড অংশ দিয়ে প্রবেশ করতেই প্রথমেই থমকে যেতে হয় সড়কের ঠিক মাঝখানে বিশাল বড় গর্ত দেখে। পানির স্রোতে এই গর্তের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মনির মোল্লা। তিনি বলেন এখানে এই সড়কের কাজ এলজিআরডি করেছে। তারা যেখানে কালভার্ট দেয়ার প্রয়োজন সেখানে না দিয়ে ভুল জায়গায় কালভার্ট দেয়ায় সড়কের এই দশা। অথচ ছয়মাসও হয়নি এ সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এখানে সড়ক ও খাল খননের কাজ একইসময় হয়েছে। খাল খননের সময় পাইলিং করা হয়নি আবার রাস্তার পাশে কোনো জায়গাও রাখা হয়নি, ভেপু দিয়ে খাড়া ভাবে খাল কাটা হয়েছে। ফলে এ অংশের সড়ক ভেঙে খালে পরছে বলে জানান মনির মোল্লা।

একটু পশ্চিমে এগিয়ে গেলেই দুটি কালভার্ট। পাশেই এআর খান উচ্চ বিদ্যালয়। অপরপাশে খালের উপর দিয়ে সেতু পার হলে ৫ নং ওয়ার্ড অংশে রয়েছে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সাইক্লোন সেন্টার। এখানেও এলাকাবাসীর দাবী গত প্রায় ছয়মাস ধরে এই সড়কের একপাশ ভেঙে পরছে খালে। খাড়াভাবে মাটি কাটা ও পাইলিং না করার কারণে সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ অংশের ইউপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান নান্টু বলেন, এই অংশের সড়কটিও নাভানা কোম্পানির দায়িত্বে ছিলো। তারা এখানে সাইক্লোন সেন্টার করার টেন্ডার নিয়েছিলেন, পরে তা নলছিটি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিন সাহেবের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন। সাইক্লোন সেন্টার কাজ শেষ করে হস্তান্তর হলেও সড়কের কাজ এই খোয়া ফালানো পর্যন্ত আটকে আছে।

বরিশালের সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ড নিয়ে এই সড়কটি তৈরি হয়েছে গত ২০২১ সালের শেষেরদিকে বলে জানান ইউপি সদস্য নান্টু।

এ বিষয়ে চরকাউয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ছবি বলেন, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও এআর খান স্কুল ওখানে। প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থীদের চলাচল এপথে। সড়কের মাঝখানে গর্ত তৈরি হয়েছে। কোনো ছেলেমেয়ে ওতে পরলে কি অবস্থা হবে? খাল খনন করতে যেয়ে সড়কের এ অবস্থা হয়েছে। আশাকরি বরিশাল ৫ আসনের সংসদ সদস্য পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল অবঃ জাহিদ ফারুক শামীম খুব দ্রুত এই সমস্যার সমাধান দেবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo