২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ১২:১৮

বরিশালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের সচেতনতামূলক সভা ও লিফলেট বিতরণ

বার্তা ডেক্স:
  • আপডেট সময়ঃ বুধবার, আগস্ট ২৩, ২০২৩,
  • 64 পঠিত

আজ ২৩ আগস্ট বুধবার দুপুর ১ টায় জেলা প্রশাসন বরিশালের আয়োজনে ৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্ব স্ব বিদ্যালয়ের হল রুমে ডেঙ্গুসহ অন্যান্য মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের সচেতনতামূলক সভা ও লিফলেট বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক বরিশাল শহিদুল ইসলাম এর নির্দেশনা মোতাবেক জেলা প্রশাসন থেকে সপ্তাহব্যাপী জেলার শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সভা ও লিফলেট বিতরণ কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায়। আজ এ কে মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শের ই বাংলা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, ছাবেরা খাতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, এ আর এস বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বরিশাল মনদীপ ঘরাই উপস্থিত থেকে উক্ত কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেন। এসময় স্ব স্ব বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষক মন্ডলী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। অতিথিরা ডেঙ্গু প্রতিরোধে করণীয় বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে আলোচনা করেন। ডেঙ্গু একটি ভাইরাসজনিত রোগ যা এডিস মশার মাধ্যমে ছড়ায়। এই মশা সাধারণতঃ ভোরবেলা ও সন্ধ্যার পূর্বে কামড়ায়। সাধারণ চিকিৎসাতেই ডেঙ্গু জ্বর সেরে যায়, তবে ডেঙ্গু শক সিনড্রোম এবং হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর মারাত্মক হতে পারে। বর্ষার সময় সাধারণত এ রোগের প্রকোপ বাড়ে। এডিস মশার বংশ বৃদ্ধি রোধের মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করা যায়। আপনার ঘরে এবং আশেপাশে যে কোন জায়গায় পানি জমতে না দেয়া। ফলে এডিস মশার লার্ভা জন্মাতে পারবে না। ব্যবহৃত পাত্রের গায়ে লেগে থাকা মশার ডিম অপসারণে পাত্রটি ব্লিচিং পাউডার দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে। ফুলের টব, প্লাস্টিকের পাত্র, পরিত্যক্ত টায়ার, প্লাস্টিকের ড্রাম,মাটির পাত্র, বালতি, টিনের কৌটা, ডাবের খোসা/নারিকেলের মালা, কন্টেইনার, মটকা, ব্যাটারী শেল ইত্যাদিতে এডিস মশা ডিম পড়ে। কাজেই এগুলো বর্জ্য হিসেবে ব্যবস্থা নেয়া। ব্যবহৃত পানির পাত্র ধ্বংস অথবা উল্টে রাখতে হবে যাতে পানি না জমে। দিনে অথবা রাতে ঘুমানোর সময় অবশ্যই মশারী ব্যবহার করুন।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo