২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ১:১৯

কড়াপুরের বৌসেরহাটে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় ৫জনকে আসামী করে মামলা

বার্তা ডেক্স:
  • আপডেট সময়ঃ বুধবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২৩,
  • 467 পঠিত

বরিশাল সদর উপজেলার রায়পাশা-কড়াপুর ইউনিয়নের বৌসেরহাট এলাকায় দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে একজনকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় ৫জনকে আসামী করে আদালতে অভিযোগ দায়েকরা হয়েছে। ঘটনার শিকার ওই এলাকার রিয়াজ চৌধুরী শাওনের ভাই তারিকুল ইসলাম চৌধুরী বাদী হয়ে মঙ্গলবার বরিশালের বিজ্ঞ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ সংক্রান্ত অভিযোগ দায়ের করলে আদালত অভিযোগ মামলা হিসেবে গ্রহন করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য এয়ারপোর্ট থানা পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। গতকাল বুধবার আদালতের এ নির্দেশ সংশ্লিষ্ট থানায় পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাতে বৌসেরহাট এলাকার মো: দেলোয়ার, আবুল কালাম আজাদ, কাওছার বেপারী, সেলিম চৌধুরী, নজরুল ইসলামসহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫ জন একই এলাকার রিয়াজ চৌধুরীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গিয়ে হত্যার হুমকি প্রদর্শন করে তার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এনিয়ে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে অঅসলে অভিযুক্তরা নানাধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ওই স্থান ত্যাগ করে। পরদিন ১৭ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা নাগাদ রিয়াজ চৌধুরী বাসা থেকে দোকানের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করলে পথিমধ্যে অভিযুক্তরা তার পথরোধ করে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে বামহাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। এবং সাথে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। বাদীসহ স্থানীয়রা রিয়াজের ডাক চিৎকার শুনে ছুটে আসলে আসামীরা পালিয়ে যায়। পরে রিয়াজকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার শিকার রিয়াজের ভাই ও মামলার বাদী তারিকুল ইসলাম চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, আসামীরা স্থানীয়ভাবে সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে একাধিক মামলা দায়ের করা হলে বর্তমানে দায়ের হওয়া মামলার আসামী কাওছার বেপারীকে এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে প্রেরণ করে। পরবর্তীতে জেল থেকে জামিনে বের হয়ে আসামী কাওছার মামলার বাদী ছানিয়াত আকাশ চৌধুরীকে মামলা তুলে নিতে হুমকি প্রদর্শন করলে গত ১৩ সেপ্টেম্বর কাওছারের বিরুদ্ধে প্রাননাশের হুমকি প্রদর্শনের অভিযোগ এনে এয়ারপোর্ট থানায় সাধারণ ডায়রি করেন। স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, অভিযুক্তরা দীর্ঘদিন ধরে বৌসেরহাট এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করেছে। তাদের অপরাধের বিষয়ে কেউ মুখ খুললেই তাকে কুপিয়ে জখমসহ নানাভাবে হয়রানি করা হয়। এয়ারপোর্ট থানা পুলিশ জানিয়েছে, মো: দেলোয়ারসহ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo