১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ১০:৪০

ট্রাকের উপর ভর করা হাইব্রিডে সিসি ক্যামেরা আকাশমূখীতেই সন্দেহ !

বিশেষ প্রতিবেদক:-
  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, জানুয়ারি ৫, ২০২৪,
  • 691 পঠিত

বেরিয়ে আসতে শুরু করছে থলের বেড়াল…

বরিশাল-৫ (সদর) আসনে ট্রাক প্রতিকের সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ করা হয়েছে নৌকার সর্মথকদের বিরুদ্ধে। গতকাল শুক্রবার রাত আটটার দিকে চরবাড়িয়া ইউনিয়নে বাটনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে সরজমিনে পরিদর্শন কালে ঘটনাস্থল ট্রাক প্রতিকের প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপনের প্রতিষ্ঠিত এস আর সমাজকল্যান সংস্থার ভবনের পূর্ব দিকের পিলারে লাগানো সিসিটিভি ক্যামেরাটি সম্পূর্ন আকাশমুখী ছিলো। এই প্রতিবেদক সরজমিনে দেখতে পান এই একটি সিসিটিভি ক্যামেরা দিয়েই পুরো ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষণ করা এবং ভিডিও সংরক্ষণ করা সম্ভব ছিলো। কিন্তু কিছুটা রহস্যজনকভাবেই ক্যামেরাটিই ছিলো আকাশমুখী, যেই ব্যাপারটি পুরোটাই অস্বাভাবিকভাবে দৃশ্যমান হয়। যা নিয়ে দানা বাধে সন্দেহের। এবং একই সাথে ট্রাক প্রতিকের কয়েকজন নারী কর্মীকে অজ্ঞান হবার অভিনয় করতে দেখা যায়। এই প্রতিবেদক এর পাশে বসেই অন্যরা সেই নারী কর্মীদের অজ্ঞান হবার অভিনয় চালিয়ে নেবার জন্য পরামর্শ দিচ্ছিলেন। তবে এব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ট্রাক প্রতিকের সমর্থক কিংবা নেতারা কেউ কোন সদুত্তর দিতে পারেননি। আর অপরদিকে নৌকার সমর্থকরা অভিযোগ, ছাত্রলীগের কর্মীদের উপর নৃশংস হামলার পর ঘটনা ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার জন্যই ট্রাক প্রতিকের প্রার্থী এ নাটক মঞ্চস্থ করেন। ট্রাকের কর্মীদের হামলা ও মারধরে আহত হয়ে নৌকার তিন কর্মী বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এছাড়াও নৌকার কর্মীদের তিনটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে। আটক করে থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয় নৌকার দুই কর্মীকে। স্থানীয় একাধিক ব্যাক্তি সাথে আলাপাকালে তারা অভিযোগ করেন, এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে নিজেরাই ট্রাক প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে ভাংচুর করে নৌকার কর্মীদের দায়ী করছে। হামলায় আহতরা হলো-নৌকার কর্মী মো. ফেরদৌস, অভি ও রাফি। এর মধ্যে রাফির অবস্থা গুরুতর। ভুক্তভোগী মো. ইমন জানান, চরবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য শহিদুল ইসলাম ইটালী শহীদের বাড়ীতে পিকনিকে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ফেরার পথে ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী সালাহউদ্দিন রিপনের বাড়ীর সামনে হামলার শিকার হয়। ইমনের অভিযোগ, তাদের আসার খবর পূর্ব থেকে পেয়ে প্রার্থীর বাড়ীর সামনে সড়ক অটোরিক্সা রেখে আটকে দেয়। নৌকার কর্মীদের মোটর সাইকেলের সাথে অটোরিক্সা দিয়ে আঘাত করে হামলা শুরু করে। এক পর্যায়ে ট্রাকের নির্বাচনী কার্যালয়ে চেয়ার নিক্ষেপ শুরু করে। এতে তাদের মোটর সাইকেল আটকে পড়ে। তখন ট্রাকের কর্মীরা এসে মারধর করে। ট্রাকের কর্মীদের এলোপাতারি মারধরে অন্তত ১০ জন আহত হয়। ট্রাকের কর্মীরা তিনটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে দুই জনকে আটকে রেখেছে বলে অভিযোগ করেছে ইমন। বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জসীম উদ্দিন জানান, তারা পিকনিকে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন। পিছন থেকে ট্রাকের কর্মীরা ৩/৪টি মোটর সাইকেলে উপর হামলা করেছে। এতে তাদের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। জসিম অভিযোগ করেন, ট্রাক প্রতীকের প্রার্থীসহ তার কর্মীরা বৃহস্পতিবার হুমকি দিয়েছিলো তারা কেন্দ্র দখল করবে। সেই ধারাবাহিকতায় নৌকার কর্মীদের উপর হামলা করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo