২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ রাত ১:৪৯

সিটি নির্বাচনের ধারে কাছেও নেই বিএনপি

রিপোর্টার নামঃ
  • আপডেট সময়ঃ শুক্রবার, এপ্রিল ৭, ২০২৩,
  • 29 পঠিত

নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে স্থানীয় সরকারের অধীন পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা করলেও বিষয়টি আমলে নিচ্ছে না রাজপথের বিরোধী দল বিএনপি। তাদের ভাবনায় এখন সরকারের পতন ও নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন। এই দাবিসহ দশ দফার ভিত্তিতে বিএনপি এখন যুগপৎ আন্দোলনে রয়েছে। দাবি আদায়ে ঈদের পরে বড় আন্দোলনে নামার পরিকল্পনা রয়েছে হাইকমান্ডের। এ লক্ষ্যে রমজানে ইফতার মাহফিলের মধ্য দিয়ে প্রয়োজনীয় সাংগঠনিক প্রস্তুতি গ্রহণ করছে দলটি। এদিকে আওয়ামী লীগ সরকার এবং বর্তমান নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে জাতীয় ও স্থানীয় সরকারের কোনো নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত রয়েছে বিএনপির। সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আসন্ন পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও অংশ নেবে না দলটি। তবে এক্ষেত্রে উকিল আব্দুস সাত্তারদের নিয়ে সতর্ক হাইকমান্ড। দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে উকিলের মতো কোনো নেতা যদি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বিএনপি। এক দফার আন্দোলন সামনে রেখে সংগঠনে শৃঙ্খলা রক্ষায় এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেবে না হাইকমান্ড।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন গতকাল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ও বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে আগামীতে জাতীয়সহ স্থানীয় সরকারের কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার ব্যাপারে দলের সিদ্ধান্ত রয়েছে। এখন পর্যন্ত সেই সিদ্ধান্তই বহাল রয়েছে। দলের এই সিদ্ধান্ত অমান্য করে যদি কেউ নির্বাচনে যান, তার বিরুদ্ধে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এর আগে যেমনটা নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটির ক্ষেত্রে নেওয়া হয়েছিল। এক প্রশ্নে তিনি বলেন, বিএনপি এখন সরকারের পতন এবং নির্দলীয় সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ বিভিন্ন দাবিতে যুগপৎ আন্দোলনে রয়েছে। অন্য কিছু ভাবার সময় নেই।
নির্বাচন কমিশন গত সোমবার দেশের পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা করেছে। তপশিল অনুযায়ী, ২৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে, ১২ জুন খুলনা ও বরিশালে এবং ২১ জুন রাজশাহী ও সিলেট সিটির ভোট গ্রহণ হবে। দলীয় প্রতীকে স্থানীয় সরকারের এ নির্বাচন হবে ইভিএমে। এর আগে ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে পাঁচটির মধ্যে কেবল সিলেট সিটিতে বিএনপির মেয়র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছিলেন। তখন গাজীপুরে হাসান উদ্দিন সরকার, খুলনায় নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সিলেটে আরিফুল হক চৌধুরী, রাজশাহীতে মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এবং বরিশালে মজিবর রহমান সরোয়ার বিএনপির প্রার্থী ছিলেন। এর আগে দশম সংসদ নির্বাচনের আগে ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত পাঁচ সিটির ভোটের সবকটিতেই মেয়র পদে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট সমর্থিত প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সর্বশেষ সিটি নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট করা বিএনপির মেয়র প্রার্থীদের কেউ দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ভোট করবেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo