২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ দুপুর ১:৫৮

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দলিল সম্পাদন করায় খেপুপাড়ার সাবরেজিষ্ট্রার সহ সাতজনকে আদালতের সমন”

রিপোর্টার নামঃ
  • আপডেট সময়ঃ শনিবার, মে ৬, ২০২৩,
  • 44 পঠিত

কলাপাড়া থানাধীন লতাচাপলা মৌজার ৪৪/৪৮/২৮৩/৭৭/৫৯৫ খতিয়ানের ১০.৮৯ একর ভূমি বাবদ স্বত্ব ঘোষণার প্রার্থনায় ২৭৬/২০১৯ মোকদ্দমাটি যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে দায়ের এবং পরবর্তীতে যা বদলী হয়ে কলাপাড়া সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে ১৭৮৯/২১ মোকদ্দমা হিসেবে রেজিষ্ট্রিভুক্ত হয়।
ঘটনার বিবরণে জানা যায় যে, উক্ত তফসিলভুক্ত সম্পত্তির মালিক মিনারা বেগম গং।এই সম্পত্তির উপর লোভ পড়তে কুয়াকাটা হোটেল ইন এর সত্তাধিকারী মোঃ ওয়াহেদুজ্জামান সোহেলের। জমি ভোগদখলের জন্য সে শরনাপন্ন হয় খেপুপাড়ার সাবরেজিষ্ট্রার কাজী নজরুল ইসলামের। পরবর্তীতে বর্তমান সাবরেজিষ্ট্রার এবং খেপুপাড়ার প্রাক্তন সাবরেজিষ্ট্রার (বর্তমান সাবরেজিষ্ট্রার এর ভাই) এর সাথে যোগসাজশে আঃ মান্নান গংকে ভূয়া মালিক সাজিয়ে বিগত ১৭/০৪/২৩ তারিখে গোপনে পটুয়াখালী শহরে মোঃ ওয়াহেদুজ্জামান সোহেলের নামে দলিল সম্পাদন করে। এই ঘটনা জানার পরে বাদীপক্ষ আদালতের শরণাপন্ন হলে বিগত ৩০/০৪/২৩ তারিখে খেপুপাড়ার সাবরেজিষ্ট্রার কাজী নজরুল ইসলাম, মোঃ ওয়াহেদুজ্জামান সোহেল এবং আঃ মান্নান সহ সহ সাতজনকে আদালতের সমন প্রেরন করা হয়।

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন ...

এই বিভাগের আরো সংবাদ...
© All rights reserved © ২০২৩ স্মার্ট বরিশাল
EngineerBD-Jowfhowo